BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
সংবাদ শিরোনাম
Home / প্রথম পাতা / সাংবাদিক কামরুল উদ্দিনের পিতার দাফন সম্পন্ন,বিভিন্ন মহলের শোক

সাংবাদিক কামরুল উদ্দিনের পিতার দাফন সম্পন্ন,বিভিন্ন মহলের শোক

মোহাম্মদ আলাউদ্দীন, সীতাকুণ্ড টাইমসঃ

সীতাকুণ্ড অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সদস্য ও বিবিসিনিউজ২৪ ডটকম এর সীতাকুণ্ড সাংবাদিক মুহাম্মদ কামরুল উদ্দিন এর পিতা প্রবীণ আলেমেদ্বীন আলহাজ্ব মাওলানা মনির আহম্মদ হোসাইনী দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

১৬ মার্চ সোমবার সকাল ১১টায় নিজ বাসভবন সংলগ্ন বায়তুল আমান জামে মসজিদ মাঠে নামাজে জানাজা শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।

জানাজায় স্থানীয় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শোক প্রকাশঃ

সাংবাদিক কামরুল উদ্দীনের পিতা প্রবীণ আলেমেদ্বীন আলহাজ্ব মাওলানা মনির আহম্মদ হোসাইনী এর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন আলহাজ্ব দিদারুল আলম এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস এম আল মামুন, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য আ ম ম দিলসাদ, অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন এর সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সেক্রেটারি জাহাঙ্গীর আলম বিএসসি ও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সাংবাদিক কামরুল উদ্দীনের বাবার মৃত্যুতে পোস্টকার্ড পরিবার গভীরভাবে শোকাহত ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছে ।

উল্লেখ্য ১৫ মার্চ রবিবার সাংবাদিক মুহাম্মদ কামরুল উদ্দিন এর পিতা প্রবীণ আলেমেদ্বীন আলহাজ্ব মাওলানা মনির আহম্মদ হোসাইনী রাত ১০টার সময় নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন।

আলহাজ্ব মাওলানা মনির আহম্মদ হোসাইনী সংক্ষিপ্ত জীবনী
তঁার ছেলে কামরুল উদ্দীন জানান
১৯৫০ সালে ২রা এপ্রিল শেখ বংশে ফৌজদারহাটস্থ আবদুল্লাহঘাটা ঝুনা মার্কেট এলাকায় জন্মগ্রহন করেন। তার পিতার নাম আলহাজ্ব আল্লামা আলী হোসেন সাহেব, মাতার নাম আছুবা খাতুন। তার পিতা অলিয়ে কামেল আলহাজ্ব আল্লামা আলী হোসেন শাহ (রহঃ) একজন আল্লাহর ওলী ছিলেন সীতাকুণ্ডে সবাই তাকে বুড়া হুজুর নামে চিনত।
হুজুর শিক্ষাজীবনে অনেক মেধাবী ছিলেন, দাখিল, আলিম, ফাজিল ছোবহানীয়া আলীয়া মাদ্রাসা ও কামেল জামেয়া আহমদিয়া সুন্নীয়া মাদ্রাসা থেকে পাশ করে শিক্ষাজীবন শেষ করেন। তিনি কর্মজীবনে এলাকার মসজিদে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ২০১৬ সাল পর‍্যন্ত ইমাম ও খতিবের দায়িত্বরত ছিলেন। প্রায় ২৫ বছর স্বল্প বেতনে এই দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি মোতাওয়াল্লী হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সীতাকুণ্ড বিভিন্ন ওয়াজ নসীহতের মাধ্যমে মানুষদের মাঝে ইসলাম প্রচার করেছেন। মাদ্রাসা পড়াকালীন থেকে হুজুর কেবলা আল্লামা নুরুল ইসলাম হাশেমী সাহেবের সাথে চলাফেরা করত। হুজুর একনিষ্ঠ মুরিদ ছিলেন , সীতাকুণ্ডে যেকোন স্থানে হুজুর আসলে তিনি সেখানে উপস্থিত হতেন । বহুবছর আঞ্জুমান মুহিব্বানে গাউছিয়া জিলানী কমিটি সীতাকুণ্ডের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন । ফৌজদারহাট থেকে কাশেম জুট মিলস পর‍্যন্ত হুজুরের অনেক ভক্ত ও অনুরাগী রয়েছেন।
আজীবন ওয়াজ মাহফিলে সুন্নিয়তের কথা বলেছেন
তিনি ৩ বার পবিত্র হজ্ব ও ২৫ বারেও বেশি তিনি ভারত আজমির শরীফ খাজা মঈনউদ্দিন চিশতী (রহ:) ,কয়েকবার মোজাদ্দেদী আল ফেসানী (রহ) ,বাংলাদেশের বিভিন্ন দরবারে জিয়ারতের উদ্দেশ্যে সফরে গিয়েছেন।
বর্তমানে তিনি মাইণ্ড স্ট্রোক করে অসুস্থতায় ভোগ করে ১৫ মার্চ রবিবার রাত ৯ টায় ইন্তেকাল করিয়াছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *