BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
সংবাদ শিরোনাম
Home / প্রথম পাতা / হযরত খাজা কালুশাহ বালিকা স্কুলে অভিভাবক সমাবেশ

হযরত খাজা কালুশাহ বালিকা স্কুলে অভিভাবক সমাবেশ

কামরুল (সীতাকুণ্ড) : শিক্ষার গুনগত মান উন্নয়নে অভিভাবক হিসেবে ‘মা’-এর ভূমিকা অপরিসীম। একজন আদর্শিক মা পারবে একজন সন্তানের জীবন পরিবর্তন করতে। পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে একটি পরিকল্পিত, সু-নিয়ন্ত্রীত ও কার্যকরী কৃত্রিম শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যেতে হয়। মানুষ তার হিতাহিত জ্ঞান নিয়ে জন্মায় না। জগতের অন্য সকল শিশুর মতই মানব শিশু অবোধ ও অবুঝ হয়ে জন্ম নেয়। তার মা-বাবা, আত্মীয়-স্বজন, সমাজ ও পরিবেশ ইত্যাদি তাকে হিতাহিত জ্ঞানের উম্মেষ ঘটাতে সাহায্য করতে পারে। হযরত খাজা কালুশাহ (রহঃ) বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের অভিভাবক সমাবেশে এ কে এম জাফরউল্লাহ সাহেব এসব কথা বলেন।
২১ সেপ্টেম্বর বিকাল ২ টায় প্যাসিফিক জিন্স ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মাদ্রাসা ও বিদ্যালয় এর শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পপতি একেএম জাফরউল্লাহ সাহেব। বিশেষ অতিথি ছিলেন, প্যাসিফিক জিন্সের কর্মকর্তা মামুন, স্কাউট কমিশনার মাস্টার জাহাঙ্গীর ভুইঞা, সীতাকুণ্ড পৌরসদর বাজারের সভাপতি রেজাউল করিম বাহার, সীতাকুণ্ড অনলাইন জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম বিএসসি, ইলিয়াস চৌধুরী বাচ্চু, মহিউদ্দিন, খালেদ নেজামী, সাংবাদিক নাছির উদ্দিন শিবলু, সাংবাদিক মেজবাহ খালেদ।
বক্তারা বলেন, প্যাসিফিক জিন্স ফাউন্ডেশন প্রায় ৪২ টিরও বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে সার্বিক সহযোগিতা করে আসছে শুধু শিক্ষার্থীদের মেধা ও পড়ালেখায় উৎসাহ বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে। প্যাসিফিক জিন্স ফাউন্ডেশনের লক্ষ্য হল একজন শিক্ষার্থীর জ্ঞানার্জনের মাধ্যমে জীবনকে আলোকিত করা। সপ্তম শ্রেণী থেকে মাস্টার্স পাশ করা পর্যন্ত ছাত্রীদের দায়িত্ব নিলেন এবং চাকরির ব্যবস্থা করার প্রয়োজন হলে তাও করার আশ্বাস দেন।
অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষিকা আনজুমান আরা, মানস মজুমদার, বিবি আয়েশা, মমতাজ বেগম, হাবিবা সুলতানা, আবদুল মান্নান ভুঁইয়া, জামিল উদ্দিন আহমেদ, তন্ময় সিংস, শাহানাজ বেগম সোনিয়া, রুবেল কুমার শীল, আসমা আক্তার, শুভ শংকর দে, তানজিনা আফরিন, আবদুল্লাহ আল মোমিন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *